প্রকাশিত : Tue, Sep 11th, 2018
বিভাগঃ *লীড / জাতীয়

উত্তরায় গোলাম সারওয়ার স্মরণে শোক সভা অনুষ্ঠিত

ঢাকা : বাংলাদেশে যতদিন সাংবাদিকতা থাকবে ততোদিন গোলাম সারওয়ার থাকবেন, যতদিন বার্তা সম্পাদকীয় প্রতিষ্ঠান থাকবে ততোদিন তাঁর নামটি শ্রদ্ধার সঙ্গে উচ্চারিত হবে।প্রয়াত সমকাল সম্পাদক ও সাংবাদিকতার কিংবদন্তি গোলাম সারওয়ার-কে নিয়ে রাজধানীর উত্তরা মিডিয়া ক্লাব আয়োজিত স্মরণসভায় যোগ দিয়ে তাঁর দীর্ঘদিনের সহকর্মী ও বিশিষ্টজনরা এই মূল্যায়ন তুলে ধরেছেন। তারা বলেছেন, গোলাম সারওয়ারের মতো সাংবাদিকের কর্ম ও আদর্শ নতুনদের পথ দেখাবে।

সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর উত্তরা কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত এই স্মরণসভায় সভাপতিত্ব করেন ক্লাবের আহ্বায়ক এবং প্রবীণ সাংবাদিক ও রবীন্দ্র গবেষক আমিনুল ইসলাম বেদু।অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন মাওলানা মুহাম্মদ ওবায়দুল্লাহ এবং অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন-দৈনিক মানবকণ্ঠের প্রকাশক জাকারিয়া চৌধুরী, বিজিএমইএ’র সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম, প্রয়াত গোলাম সারওয়ারের ছেলে রঞ্জু, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর আফসার উদ্দিন, ঢাকা জেলা পরিষদের সদস্য জনাব শামদুদ্দিন লাভলু, ফরিদুর রহমান, উত্তরা মিডিয়া ক্লাবের সদস্য সচিব ও নিউজ২১ বিডি ডটকম এর সম্পাদক শরিফুল ইসলাম খান, শেকানুল ইসলাম শাহী, সাংবাদিক নাদিরা দিলরুবা, টংঙ্গী প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: আওলাদ হোসেন প্রমুখ।

প্রায়ত গোলাম সারওয়ার স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।  বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সমাজকর্মী আজীবন সদস্য, মিডিয়া সেল কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন ও চ্যানেল ২১ বিডি.র প্রকাশক সম্পাদক নাদিরা দিলরুবা তার বক্তব্যে বলেন, সাংবাদিকদের কাছে প্রয়াত গোলাম সারওয়ার ছিলেন বটবৃক্ষ সম। যেকোন সমস্যায় বা ঝুকিপুর্ন পরিস্থিতিতে পড়লে তিনি এগিয়ে আসতেন তা সমাধানে। তিনি ছিলেন বিনয়ী স্বল্পভাষী ও নিঃস্বার্থবান নিবেদিতপ্রান সংবাদ জগতের মানুষ। আল্লাহ যেন তার সৎ কর্মের পুরষ্কার হিসেবে বেহেস্ত দান করেন।

 

স্মরণ : হাতে-কলমে শেখাতেন গোলাম সারওয়ার

স্মরণসভায় দীর্ঘ স্মৃতিচারণে প্রয়াত গোলাম সারওয়ারের সহকর্মী ও প্রকাশিতব্য জাগরণ এর সম্পাদক আবেদন খান বলেন, ‘গোলাম সারওয়ারকে জানাটা বড় প্রয়োজন। সত্যি বলতে কী আমার চোখের সামনে গোলাম সারওয়ার তৈরি হয়েছেন।আমি বিভিন্ন দিকে নিজেকে যুক্ত করেছিলাম। গোলাম সারওয়ার একদিকে নিবদ্ধ ছিলেন, সেটা তাঁর পেশাগত জীবনে।’

‘এত অসাধারণ তাঁর গদ্য, এত অসাধারণ কাব্যিক তাঁর রচনা এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণের অতুলনীয় ক্ষমতা ছিল গোলাম সারওয়ারের। অনেক বার্তা সম্পাদকের সঙ্গে আমি কাজ করেছি, তোয়াব খানের সঙ্গে কাজ করেছি, সন্তোষ গুপ্তের সঙ্গে কাজ করেছি, আরও অনেক বার্তা সম্পাদকের সঙ্গে কাজ করেছি। কিন্তু বার্তা সম্পাদককে পরিপূর্ণ বার্তা সম্পাদক হয়ে এখান থেকে পরিপূর্ণ সম্পাদকে পরিণত হওয়া এবং কেবল সম্পাদকে পরিণত শুধু নয়-সম্পাদকীয় প্রতিষ্ঠান সৃষ্টির মধ্যে এক নিবেদিত প্রাণ হওয়া একমাত্র গোলাম সারওয়ারের পক্ষে সম্ভব হয়েছে’বলেন আবেদ খান।

গোলাম সারওয়ারদের প্রয়াণ সাংবাদিকতার জগতে বিরাট শুন্যতার সৃষ্টি করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা দিনের পর দিন ভাল মানুষগুলোকে হারিয়ে ফেলছি, শক্তিগুলোকে হারিয়ে ফেলছি। যিনি চলে যান তিনি সব নিয়ে চলে যান, যিনি চলে যান তিনি তাঁর সমস্ত অঙ্গীকার নিয়ে চলে যান, রেখে যান শুধু কর্ম। আজ গোলাম সারওয়ার যে জিনিসটি রেখে গেছেন সেটি হচ্ছে কর্ম। যতদিন যুগান্তর থাকবে, সমকাল থাকবে, সাংবাদিকতা থাকবে, বার্তা সম্পাদকের প্রতিষ্ঠান থাকবে; সম্পাদকীয় কার্যক্রম থাকবে, ততোদিন গোলাম সারওয়ার থাকবেন।’

অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতার শিক্ষক ও বিশ্ববিদ্যালয়টির সাকেব উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, ‘আমার অনেক শিক্ষার্থীই বিভিন্ন গণমাধ্যমে কাজ করেন, তারা একটি কথা বলেন-গণমাধ্যমে হাতে কলমে কাজ শেখানোর মানুষ খুব কম। গোলাম সারওয়ার ছিলেন সেই সাংবাদিক-শিক্ষক যিনি সংবাদকর্মীদের হাতে কলমে শেখাতেন। তিনি ছিলেন বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ বার্তা সম্পাদক।’

তিনি আরও বলেন, ‘কিছু মানুষ আছেন তারা যত বয়েসেই মারা যান না কেন, সেটি অকাল মৃত্যু মনে হবে-গোলাম সারওয়ার তেমনি একজন মানুষ ছিলেন, তিনি পচাত্তর বছর বয়েছে মারা গেলেও স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে তাঁর প্রয়োজন শেষ হয়নি।’

 

সমকাল এর পক্ষ থেকে প্রয়াত সম্পাদকের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে বক্তব্য রাখেন পত্রিকাটির বিশেষ প্রতিনিধি রাশেদ মেহেদী। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে দায়িত্বশীল সাংবাদিকতার প্রধান গুরু ছিলেন গোলাম সারওয়ার-অস্বীকার করার কোনো উপায় নাই। আমরা এখনও শোক কাটিয়ে উঠতে পারিনি। সমকালে যদি যান দেখবেন, আমাদের বোর্ড রুম থেকে সর্বত্র একটি মানুষের ছবি, একটি মানুষের ছায়া-তিনি গোলাম সারওয়ার।

তিনি বলেন, ‘সারওয়ার ভাই অনেক কিছুর সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। তিনি উত্তরা মিডিয়া ক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা ছিলেন এটি আমাদের জানা ছিল না। আপনারা যে আয়োজন করেছেন, সমকালের পক্ষ থেকে-টিম সমকালের পক্ষ থেকে আমাদের কৃতজ্ঞতা।’

মেজর (অবঃ) আমিন আহমেদ আনসারীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রয়াত গোলাম সারওয়ারকে নিয়ে শোকগাঁথা পাঠ করেন বহুমাত্রিক ডটকম এর প্রধান সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম। এই স্মরণসভায় উপস্থিত ছিলেন টংঙ্গী প্রেসক্লাবের সেক্রেটারী চ্যানেল ২১ বিডি.র প্রকাশক সম্পাদক নাদিরা দিলরুবা, টংঙ্গী প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: আওলাদ হোসেন,  সাংবাদিক সেলিম কবির, সাংবাদিক কাজল হাজরা, সাংবাদিক কাজী রফিক, সাংবাদিক সৈয়দ আতিক, মিনারা সুলতানা, সাংবাদিক নাসির উদ্দিন বুলবুল, সাংবাদিক মৃণাল চৌধুরী সৈকত, সাংবাদিক মোঃ আজগর, নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

2,924 total views, 3 views today

Related Posts

Share

Comments

comments

রিপোর্টার সম্পর্কে

%d bloggers like this: