বিকাল ৪:২২ | সোমবার | ২২শে জুলাই, ২০১৯ ইং | ৭ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আমরা সেই ময়মনসিংহের মানুষ যারা শেখ হাসিনা ছাড়া আর কিছু বুঝিনা-মোহিত উর রহমান শান্ত

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত ॥ মাটি ও মানুষ ॥
ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর খুনিরা চেয়েছিল দেশকে পেছনে নিয়ে যেতে। তারা পারেনি। বাংলাদেশ আজ বঙ্গবন্ধু তনয়া জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে। আর এ সময়ই ফের ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। তাদের টার্গেট জননেত্রী শেখ হাসিনা। কিন্তু তাদের কোন ষড়যন্ত্র সফল হবে না। কেননা দেশবাসী আওয়ামী লীগের পক্ষে আছে। আর আমরা সেই ময়মনসিংহবাসী যারা জননেত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া কিছু বুঝিনা।
সোমবার কৃষ্ণচূড়া চত্তরে শোক র‌্যালীপূর্ব সমাবেশের আলোচনা সভায় জননেতা শান্ত বলেন, আমরা সেই ময়মনসিংহবাসী যারা মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় পথ চলি। যাদের হৃদয়ে বঙ্গবন্ধু। আমরা সেই ময়মনসিংহবাসী যারা অতীতে বিএনপি জোট সরকার আমলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাজপথে আন্দোলন করেছি। আজ সময় এসেছে সকল ষড়যন্ত্রে রুখে দিতে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার। এ জন্য আওয়ামী লীগকে সকল বিভাজন ভূলে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।


মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ৪২ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও শোক র‌্যালী কর্মসূচি সোমবার বিকালে কৃষ্ণচূড়া চত্তরে অনুষ্ঠিত হয়।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রিয় সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল,বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রিয় সদস্য মারুফা আক্তার পপি ও রেমন্ড আরেং। মহানগর সভাপতি আলহাজ এহতেশামুল আলম এতে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক হিসাবে বক্তব্য দিতে গিয়ে মোহিত উর রহমান শান্ত যে বক্তব্য দেন তা দলীয় নেতাকর্মীদেরকে উজ্জীবিত করে।
সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড ব্যাখা করে মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, আজকে বঙ্গবন্ধুর সন্তান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের ভবিষ্যতকে উন্নত করেছেন। বাংলাদেশ আজ স্বপ্ন দেখে। ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত করতে তিনি কাজ করছেন। দেশের মানুষ আজ ভালো আছে।
তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা আজকে বিশ্বনেত্রী হিসাবে স্বীকৃত। বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। তখন জননেত্রীকেই লক্ষবস্তু করেছে ষড়যন্ত্রকারীরা,স্বধীনতা বিরোধীরা। সেই বঙ্গবন্ধুর খুনীরা,জাতীয় ৪ নেতার খুনীরা, বিএনপি জামাত-শিবিরের খুনী চক্র যারা দেশে নাশকতা আগুন সন্ত্রাস করে মানুষ হত্যা করেছে তাদের লক্ষ্যবস্তু একটাই জননেত্রী শেখ হাসিনা।
ষড়যন্ত্রকারীরা জানে বঙ্গবন্ধুর এই রক্তকে শেষ করতে পারলে স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বকে শেষ করা যাবে,দেশকে পিছনে নেয়া যাবে, বঙ্গবন্ধুর খুনীসহ ঘাতক দুর্নীতিবাজরা জননেত্রীকে আঘাতের মাধ্যমে জয় বাংলার কণ্ঠস্বরকে স্তব্ধ করে দিতে চায়। এদের বিরুদ্ধে সোচ্চার ও সর্তক হতে আজকে জনগণকে নিয়ে আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।
তিনি বলেন, ১৫ আগষ্ট পালনে আমাদের আজকের প্রত্যয় হোক সকল ষড়যন্ত্র থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অক্ষত রেখে তার হাতকে শক্তিশালী করে আবার তাকে রাষ্ট্রক্ষমতায় বসানো। তিনি বলেন, আমরা সেই ময়মনসিংহের মানুষ যারা আওয়ামী লীগকে সংখ্যাগরিষ্ঠতা দিতে অতীতের মতো ঐক্যবদ্ধ থাকবো।


আলোচনা সভায় মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ এহতেশামুল আলম এর সভাপতিত্বে, সধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্তর সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য মারুফা আক্তার পপি, রেমন আরেং,জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এড. জহিরুল হক খোকা।
মঞ্চে আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এড. মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, আওয়ামী লীগ জাতীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক গোলাম ফেরদৌস জিল্লু, সাবেক জেলা আওয়ামী লীগ যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক রেজাউল হাসান বাবু, মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা এড. আল হোসাইন মো: তাজ, জেলা যুবলীগ আহবায়ক এড. আজহারুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক শাহরিয়ার মো: রাহাত খান জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি এড. এবিএম নুরুজ্জামান খোকন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগ আহবায়ক মোফাখখর হোসেন খোকন, জেলা যুবমহিলা লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক তামান্না ইয়াছমিন প্রিয়াংকা, মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা আশরাফ হোসাইন, শাহজাহান পারভেজ,শাকিল রানা চৌধুরী প্রবাল,মীর কাশেম,জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো: রাকিবুল ইসলাম রকিব,সাধারণ সম্পাদক সরকার মো: সব্যসাচী, মহানগর যুবলীগ যুগ্ম আহবায়ক রাসেল পাঠান,মহানগর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ফয়জুর রাজ্জাক উষান প্রমুখ।
আলোচনা সভা শেষে রেলওয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্তর থেকে একটি বিশাল শোক র‌্যালী বের হয়। র‌্যালীটি নগরীর প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে টাউন হল সৈয়দ নজরুল ইসলাম স্কয়ারে গিয়ে শেষ হয়। স্মরণকালের বৃহত্তর এই শোক র‌্যালীতে মহানগর আওয়ামী লীগ এর ২১ ওয়ার্ড ছাড়াও যুবলীগ,ছাত্রলীগ,স্বেচ্ছাসেবকলীগ,মহানগর যুবলীগ,মহানগর ছাত্রলীগসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন অংশ গ্রহন করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» তুরাগে পড়ে যাওয়া ট্যাক্সিক্যাবের সন্ধান মেলেনি, উদ্ধার কাজ চলছে

» উত্তরায় কিশোর গ্যাং গ্রুপের ১৪ সদস্য আটক

» বাংলাদেশে অফিস চালু করছে ফেসবুক

» উচ্চমাধ্যমিকের ফল প্রকাশ: পাসের হার ৭৩.৯৩%

» বিয়ের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নববধূকে তালাক যৌতুকে মোটরসাইকেল না পেয়ে

» ট্রাফিক সার্জেন্ট কিবরিয়াকে বাঁচানো গেল না

» রাজধানীতে বাড়ছে কিশোর গ্যাং কালচার

» পৃথিবীর সবচেয়ে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী এসি ও ফ্রিজ আবিষ্কার করলেন টাঙ্গাইলের শরীফুল

» ফাইনাল রাউন্ডে ওঠার জন্য যৌন সম্পর্ক!

» উত্তরায় যায়যায়দিন-এর ১৪তম বর্ষ পূর্তি উদযাপন

» তুরাগ হতে কিশোর গ্যাং গ্রুপের ১১ সদস্যকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১

» তুরাগের ১৭শ পিছ ইয়াবাসহ আটক ৪

» বরুড়ার পৌর কাউন্সিলরের বাড়িতে হামলা ভাংচুর

» দশমিনা উপজেলায় সর্বপ্রথম মানবতার দেয়াল এর শুভ উদ্ভোধন

» কাজী ফজলুল হকের ৭০তম জন্মদিন পালন

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট

সোমবার, ৭ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৪:২২ ,

আমরা সেই ময়মনসিংহের মানুষ যারা শেখ হাসিনা ছাড়া আর কিছু বুঝিনা-মোহিত উর রহমান শান্ত

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত ॥ মাটি ও মানুষ ॥
ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর খুনিরা চেয়েছিল দেশকে পেছনে নিয়ে যেতে। তারা পারেনি। বাংলাদেশ আজ বঙ্গবন্ধু তনয়া জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে। আর এ সময়ই ফের ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। তাদের টার্গেট জননেত্রী শেখ হাসিনা। কিন্তু তাদের কোন ষড়যন্ত্র সফল হবে না। কেননা দেশবাসী আওয়ামী লীগের পক্ষে আছে। আর আমরা সেই ময়মনসিংহবাসী যারা জননেত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া কিছু বুঝিনা।
সোমবার কৃষ্ণচূড়া চত্তরে শোক র‌্যালীপূর্ব সমাবেশের আলোচনা সভায় জননেতা শান্ত বলেন, আমরা সেই ময়মনসিংহবাসী যারা মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় পথ চলি। যাদের হৃদয়ে বঙ্গবন্ধু। আমরা সেই ময়মনসিংহবাসী যারা অতীতে বিএনপি জোট সরকার আমলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাজপথে আন্দোলন করেছি। আজ সময় এসেছে সকল ষড়যন্ত্রে রুখে দিতে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার। এ জন্য আওয়ামী লীগকে সকল বিভাজন ভূলে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।


মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ৪২ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও শোক র‌্যালী কর্মসূচি সোমবার বিকালে কৃষ্ণচূড়া চত্তরে অনুষ্ঠিত হয়।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রিয় সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল,বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রিয় সদস্য মারুফা আক্তার পপি ও রেমন্ড আরেং। মহানগর সভাপতি আলহাজ এহতেশামুল আলম এতে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক হিসাবে বক্তব্য দিতে গিয়ে মোহিত উর রহমান শান্ত যে বক্তব্য দেন তা দলীয় নেতাকর্মীদেরকে উজ্জীবিত করে।
সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড ব্যাখা করে মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, আজকে বঙ্গবন্ধুর সন্তান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের ভবিষ্যতকে উন্নত করেছেন। বাংলাদেশ আজ স্বপ্ন দেখে। ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত করতে তিনি কাজ করছেন। দেশের মানুষ আজ ভালো আছে।
তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা আজকে বিশ্বনেত্রী হিসাবে স্বীকৃত। বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। তখন জননেত্রীকেই লক্ষবস্তু করেছে ষড়যন্ত্রকারীরা,স্বধীনতা বিরোধীরা। সেই বঙ্গবন্ধুর খুনীরা,জাতীয় ৪ নেতার খুনীরা, বিএনপি জামাত-শিবিরের খুনী চক্র যারা দেশে নাশকতা আগুন সন্ত্রাস করে মানুষ হত্যা করেছে তাদের লক্ষ্যবস্তু একটাই জননেত্রী শেখ হাসিনা।
ষড়যন্ত্রকারীরা জানে বঙ্গবন্ধুর এই রক্তকে শেষ করতে পারলে স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বকে শেষ করা যাবে,দেশকে পিছনে নেয়া যাবে, বঙ্গবন্ধুর খুনীসহ ঘাতক দুর্নীতিবাজরা জননেত্রীকে আঘাতের মাধ্যমে জয় বাংলার কণ্ঠস্বরকে স্তব্ধ করে দিতে চায়। এদের বিরুদ্ধে সোচ্চার ও সর্তক হতে আজকে জনগণকে নিয়ে আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।
তিনি বলেন, ১৫ আগষ্ট পালনে আমাদের আজকের প্রত্যয় হোক সকল ষড়যন্ত্র থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অক্ষত রেখে তার হাতকে শক্তিশালী করে আবার তাকে রাষ্ট্রক্ষমতায় বসানো। তিনি বলেন, আমরা সেই ময়মনসিংহের মানুষ যারা আওয়ামী লীগকে সংখ্যাগরিষ্ঠতা দিতে অতীতের মতো ঐক্যবদ্ধ থাকবো।


আলোচনা সভায় মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ এহতেশামুল আলম এর সভাপতিত্বে, সধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্তর সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য মারুফা আক্তার পপি, রেমন আরেং,জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এড. জহিরুল হক খোকা।
মঞ্চে আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এড. মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, আওয়ামী লীগ জাতীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক গোলাম ফেরদৌস জিল্লু, সাবেক জেলা আওয়ামী লীগ যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক রেজাউল হাসান বাবু, মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা এড. আল হোসাইন মো: তাজ, জেলা যুবলীগ আহবায়ক এড. আজহারুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক শাহরিয়ার মো: রাহাত খান জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি এড. এবিএম নুরুজ্জামান খোকন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগ আহবায়ক মোফাখখর হোসেন খোকন, জেলা যুবমহিলা লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক তামান্না ইয়াছমিন প্রিয়াংকা, মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা আশরাফ হোসাইন, শাহজাহান পারভেজ,শাকিল রানা চৌধুরী প্রবাল,মীর কাশেম,জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো: রাকিবুল ইসলাম রকিব,সাধারণ সম্পাদক সরকার মো: সব্যসাচী, মহানগর যুবলীগ যুগ্ম আহবায়ক রাসেল পাঠান,মহানগর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ফয়জুর রাজ্জাক উষান প্রমুখ।
আলোচনা সভা শেষে রেলওয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্তর থেকে একটি বিশাল শোক র‌্যালী বের হয়। র‌্যালীটি নগরীর প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে টাউন হল সৈয়দ নজরুল ইসলাম স্কয়ারে গিয়ে শেষ হয়। স্মরণকালের বৃহত্তর এই শোক র‌্যালীতে মহানগর আওয়ামী লীগ এর ২১ ওয়ার্ড ছাড়াও যুবলীগ,ছাত্রলীগ,স্বেচ্ছাসেবকলীগ,মহানগর যুবলীগ,মহানগর ছাত্রলীগসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন অংশ গ্রহন করেন।

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট