সকাল ৯:১০ | সোমবার | ২১শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং | ৮ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বড় বন্যার আশঙ্কা ‘নেই’

গত কয়েক দিন ধরে উত্তর ও পূর্বাঞ্চলে বন্যার কারণে, বিশেষ করে যমুনার পানি ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে। এতে বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে এক ধরনের উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বন্যা ৮৮ সালকেও ছাড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কার কথা বলাবলি হচ্ছিল।
গত এপ্রিলে হাওর এলাকা ও সিলেট অঞ্চলে এবং পরে জুনে সিলেট অঞ্চলের পাশাপাশি উত্তরাঞ্চলে আরেক দফা বন্যা হয়। আর গত এক সপ্তাহ ধরে উত্তরাঞ্চল ও সিলেটে আবার বন্যা পরিস্থিতির তৈরি হয়। বিভিন্ন এলাকায় বাঁধ ভেঙে বা উপচে পানি ঢুকে পড়ে লোকালয়ে। পথঘাট ডুবে যাওয়ায় বা রেল লাইন ভেসে যাওয়ায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বিভিন্ন জনপদ। এর মধ্যে গত চার দিন ধরে দেশের প্রধান নদ নদীতে পানি বেড়েই চলছিল। আর এ কারণে এক ধরনের আতঙ্ক তৈরি হয়।

তবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী সাজ্জাদ হোসেন জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত বড় বন্যার আশঙ্কা করছেন না তারা। তিনি বলেন, যখন পদ্মা অববাহিকা, যমুনা অববাহিকা এবং মেঘনা অববাহিকা-দেশের তিন প্রধান নদী যখন এক সঙ্গে বিপদসীমা অতিক্রম করে তখন সেটাকে বড় বন্যা বলে। এখন পর্যন্ত যমুনা নদী বিপদসীমা অতিক্রম করলেও মেঘনা আর পদ্মা অববাহিকা এখন পর্যন্ত বিপদসীমার নিচেই অবস্থান করছে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র প্রতিদিন সকাল এবং বিকালে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে পানি মাপে। সেই সঙ্গে উজানের বৃষ্টি পরিস্থিতি, সেখানকার বন্যা এবং আনুষঙ্গিক নানা বিষয় বিবেচনা করে পূর্বাভাস দেয়। তারা প্রধানত ২৪ ঘণ্টা এবং ৭২ ঘণ্টার পূর্বাভাস বোর্ডের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে।

মঙ্গলবার বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্রের ওয়েবসাইটে দেয়া পূর্বাভাসে দেখা আছে, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা এবং গঙ্গা-পদ্মা অববাহিকায় পানি বৃদ্ধি অব্যাহত আছে। তবে উত্তর পূর্বাঞ্চলে সুরমা-কুশিয়ারায় পানি কমছে।

ব্রহ্মপুত্রের পানি বুধবারের মধ্যে স্থিতিশীল হয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্র। কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘যমুনার পানি বুধবার থেকে হ্রাস পেতে পারে। ২৪ ঘণ্টায় যমুনার পানি কমতে থাকবে।’

সাজ্জাদ হোসেন বলেন, উত্তরাঞ্চলে তিস্তা বেসিনে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি আছে। এর মধ্যে যমুনা বেসিনে পানি কমতে থাকলে এর সুফল পাওয়া যাবে।
বিভিন্ন গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বড় বন্যার আশঙ্কার বিষয়ে প্রচারের বিষয়ে জানতে চাইলে সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘একেকজন বিষয়টি একেকভাবে ব্যাখ্যা করেন। তবে তিন প্রধান নদীর বেসিন একসঙ্গে বিপদসীমা অতিক্রম না করলে সেটাকে বড় বন্যা বলা যায় না। আর তিন নদী একসঙ্গে বিদপসীমা অতিক্রম করবে-সে নমুনা এখন পর্যন্ত দেখছি না।’

কিন্তু বোর্ডের পূর্বাভাস অনুযায়ী তো গঙ্গা অববাহিকায় ২৪ ঘণ্টায় পানি বৃদ্ধির কথা বলা আছে-এই মন্তব্যের জবাবে সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘পদ্মা বেসিনে পানি বাড়ছে কিন্তু এখনও তা বিপদসীমার এক থেকে দেড় মিটার নিচে আছে। যেহেতু যুমনা বেসিনে পানি কমছে, তাই পদ্মা বেসিনে পানি বিপদসীমা ধরতে পারবে না। আর মেঘনা বেসিন এখনও বিপদসীমার নিচে রয়েছে।’
বৃষ্টি থামবে বৃহস্পতিবার
গত কয়েকদিন ধরে চলা বৃষ্টি আগামীকাল থেকে কমতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আর সে ক্ষেত্রে বন্যা পরিস্থিতিরও উন্নতি হতে পারে।
আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক ঢাকাটাইমসকে জানান, চলমান বৃষ্টি ১৭ আগস্ট পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। এপর বৃষ্টি কমবে।
মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোসাগরে দুর্বল থেকে মাঝারী অবস্থায় বিরাজ করছে। এর প্রভাবে দুই দিন রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হাল্কা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রধসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» এবার আসছে সাউন্ডটেক এর ব্যানারে নতুন মিউজিক ভিডিও দিয়েছি মন

» তোষকের ভেতর ঢুকে ইউরোপে যায়! (ভিডিওসহ)

» অঢেল সম্পত্তির মালিক হাজী মুহাম্মদ মহসিন দুহাতে অকাতরে বিলিয়ে গেছেন

» সফল হতে পবিত্র কুরআনের চার পরামর্শ মেনে চলুন

» পবিত্র কাবার মিনার ছুঁয়ে গেল পূর্ণিমার চাঁদ!

» ওমর (রাঃ) এর সেই চিঠি নীল নদের প্রতি

» প্রিয় নবী মুহাম্মদ (সা.)-এর বিনয় যা সমগ্র মানবজাতির জন্য উত্তম নমুনা

» মাশরাফিদের হারিয়ে বিপিএলে শুভ সূচনা মুশফিকদের

» সাইকেলের ধাক্কায় বেঁকে গেছে গাড়ি!

» ক্যান্সার শনাক্ত হবে মাত্র ১০ মিনিটেই: বাংলাদেশি বিজ্ঞানীর উদ্ভাবন

» এই শীতে হাত-পায়ের চামড়া উঠলে কী করবেন?

» সম্প্রতি শেষ হল মিউজিক্যাল ফ্লিম দিয়েছি মন ও ছোট ছোট মন

» মার খেয়েও ক্যামেরা সরাননি নারী সাংবাদিক

» কুরআন হাতে মার্কিন মুসলিম এমপিরা শপথ নিলেন

» চিত্রনায়িকা পপি বিয়ে করছেন

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট

,

বড় বন্যার আশঙ্কা ‘নেই’

গত কয়েক দিন ধরে উত্তর ও পূর্বাঞ্চলে বন্যার কারণে, বিশেষ করে যমুনার পানি ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে। এতে বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে এক ধরনের উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বন্যা ৮৮ সালকেও ছাড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কার কথা বলাবলি হচ্ছিল।
গত এপ্রিলে হাওর এলাকা ও সিলেট অঞ্চলে এবং পরে জুনে সিলেট অঞ্চলের পাশাপাশি উত্তরাঞ্চলে আরেক দফা বন্যা হয়। আর গত এক সপ্তাহ ধরে উত্তরাঞ্চল ও সিলেটে আবার বন্যা পরিস্থিতির তৈরি হয়। বিভিন্ন এলাকায় বাঁধ ভেঙে বা উপচে পানি ঢুকে পড়ে লোকালয়ে। পথঘাট ডুবে যাওয়ায় বা রেল লাইন ভেসে যাওয়ায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বিভিন্ন জনপদ। এর মধ্যে গত চার দিন ধরে দেশের প্রধান নদ নদীতে পানি বেড়েই চলছিল। আর এ কারণে এক ধরনের আতঙ্ক তৈরি হয়।

তবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী সাজ্জাদ হোসেন জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত বড় বন্যার আশঙ্কা করছেন না তারা। তিনি বলেন, যখন পদ্মা অববাহিকা, যমুনা অববাহিকা এবং মেঘনা অববাহিকা-দেশের তিন প্রধান নদী যখন এক সঙ্গে বিপদসীমা অতিক্রম করে তখন সেটাকে বড় বন্যা বলে। এখন পর্যন্ত যমুনা নদী বিপদসীমা অতিক্রম করলেও মেঘনা আর পদ্মা অববাহিকা এখন পর্যন্ত বিপদসীমার নিচেই অবস্থান করছে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র প্রতিদিন সকাল এবং বিকালে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে পানি মাপে। সেই সঙ্গে উজানের বৃষ্টি পরিস্থিতি, সেখানকার বন্যা এবং আনুষঙ্গিক নানা বিষয় বিবেচনা করে পূর্বাভাস দেয়। তারা প্রধানত ২৪ ঘণ্টা এবং ৭২ ঘণ্টার পূর্বাভাস বোর্ডের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে।

মঙ্গলবার বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্রের ওয়েবসাইটে দেয়া পূর্বাভাসে দেখা আছে, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা এবং গঙ্গা-পদ্মা অববাহিকায় পানি বৃদ্ধি অব্যাহত আছে। তবে উত্তর পূর্বাঞ্চলে সুরমা-কুশিয়ারায় পানি কমছে।

ব্রহ্মপুত্রের পানি বুধবারের মধ্যে স্থিতিশীল হয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্র। কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘যমুনার পানি বুধবার থেকে হ্রাস পেতে পারে। ২৪ ঘণ্টায় যমুনার পানি কমতে থাকবে।’

সাজ্জাদ হোসেন বলেন, উত্তরাঞ্চলে তিস্তা বেসিনে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি আছে। এর মধ্যে যমুনা বেসিনে পানি কমতে থাকলে এর সুফল পাওয়া যাবে।
বিভিন্ন গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বড় বন্যার আশঙ্কার বিষয়ে প্রচারের বিষয়ে জানতে চাইলে সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘একেকজন বিষয়টি একেকভাবে ব্যাখ্যা করেন। তবে তিন প্রধান নদীর বেসিন একসঙ্গে বিপদসীমা অতিক্রম না করলে সেটাকে বড় বন্যা বলা যায় না। আর তিন নদী একসঙ্গে বিদপসীমা অতিক্রম করবে-সে নমুনা এখন পর্যন্ত দেখছি না।’

কিন্তু বোর্ডের পূর্বাভাস অনুযায়ী তো গঙ্গা অববাহিকায় ২৪ ঘণ্টায় পানি বৃদ্ধির কথা বলা আছে-এই মন্তব্যের জবাবে সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘পদ্মা বেসিনে পানি বাড়ছে কিন্তু এখনও তা বিপদসীমার এক থেকে দেড় মিটার নিচে আছে। যেহেতু যুমনা বেসিনে পানি কমছে, তাই পদ্মা বেসিনে পানি বিপদসীমা ধরতে পারবে না। আর মেঘনা বেসিন এখনও বিপদসীমার নিচে রয়েছে।’
বৃষ্টি থামবে বৃহস্পতিবার
গত কয়েকদিন ধরে চলা বৃষ্টি আগামীকাল থেকে কমতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আর সে ক্ষেত্রে বন্যা পরিস্থিতিরও উন্নতি হতে পারে।
আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক ঢাকাটাইমসকে জানান, চলমান বৃষ্টি ১৭ আগস্ট পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। এপর বৃষ্টি কমবে।
মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোসাগরে দুর্বল থেকে মাঝারী অবস্থায় বিরাজ করছে। এর প্রভাবে দুই দিন রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হাল্কা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রধসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট