প্রকাশিত : Mon, Aug 28th, 2017

জেনে নিন, সম্পর্কের স্থায়িত্বকাল বাড়ায় কীসে?

এখন দাম্পত্য সম্পর্কের স্থায়িত্বকাল যেন শুধু ক্রমাগত কমছেই। এ জন্য আমরা নানা বাহ্যিক কারণকেই দায়ী করি।

কিন্তু আপনার দেহের ভেতরেই কি এর কোনো কারণ আছে? সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা গবেষণায়  দেখতে পেয়েছেন, আমাদের মস্তিষ্কে অক্সিটোসিন নামের এক ধরনের হরমোন আছে যা আমাদের সম্পর্কের স্থায়ীত্বকাল নির্ধারণ করে দেয়। এই হরমোনকে ভালোবাসার হরমোন বা লাভ হরমোন বলা হয়।

গবেষকরা দীর্ঘদিন ধরে ঘর-সংসার করছেন এমন দম্পতি এবং সম্প্রতি বিচ্ছেদ ঘটিয়েছেন এমন দম্পতিদের মধ্যে অক্সিটোসিন হরমোর নিঃসরণের মাত্রা তুলনা করে এই সিদ্ধান্তে এসেছেন।

গবেষকরা প্রথমে এমন একদল যুগলকে পরীক্ষা করে দেখেছেন যারা সবে মাত্র প্রেম করা শুরু করেছেন। এরপর তাদেরকে ৬-৮ মাস পর পুনরায় ডেকে পাঠিয়েছেন। ছয়মাস পরে পরীক্ষা করে দেখা গেছে যাদের মস্তিষ্কে অক্সিটোসিন হরমোনের নিঃসরণ বেশি হয়েছে তারা অনেক সুখে ছিলেন। কিন্তু যাদের মধ্যে এই হরমোনের নিঃসরণ কম হয়েছে তাদের সম্পর্ক প্রায় ভেঙ্গে যাওয়ার পথে রয়েছে।

আরেকটি গবেষণায় গবেষকরা অক্সিটোসিন স্প্রে করে দেখেছেন এর ফলে সম্পর্কের গুনগত মান বাড়ে কিনা। ওই গবেষণায় দেখা গেছে, শুধু মানুষ নয় পশুদের ওপরও এর প্রভাব পড়ে।

বানরের নাকের ওপর অক্সিটোসিন স্প্রে করার পর সেই বানরকে তার সন্তানদের প্রতি আগের চেয়ে বেশি দয়ালু হতে দেখা গেছে। অথচ ওই বানর সেসময় বিরক্ত মেজাজে ছিল।

তাহলে আমাদেরকেও সম্পর্কের স্থায়ীত্ব বাড়ানোর জন্য আমাদের মস্তিষ্কে অক্সিটোসিন হরমোন নিঃসরণ বাড়ানোর পদ্ধতি খুঁজে বের করতে হবে।

সঙ্গী বা সঙ্গীনির সাথে ঘনিষ্ঠতা বাড়ানো এবং একসঙ্গে ভালো সময় কাটানোর মাধ্যমে মস্তিষ্কে অক্সিটোসিন হরমোন নিঃসরণের মাত্রা বাড়ানো যেতে পারে।

সূত্র: বোল্ড স্কাই

2,001 total views, 3 views today

Related Posts

Share

Comments

comments

রিপোর্টার সম্পর্কে

%d bloggers like this: