বিকাল ৫:২৬ | বৃহস্পতিবার | ২৩শে মে, ২০১৯ ইং | ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়-মিন্টু কলেজে মোহিত উর রহমান শান্ত

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত ॥
আমি আজকে তোমাদের কাছে একটি মিনতি করে যাই তোমরা যে যেখানেই দাড়িয়ে থাকো না কেন, সমাজের যেখানেই তোমাদের অবস্থান হোক বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়। কথাগুলো বলেছেন ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত।
শনিবার ১৬ ডিসেম্বর সকালে মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলমগীর মনসুর মিন্টু মেমোরিয়াল কলেজ ক্যাম্পাসে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তবে রাখেন তিনি ।
কলেজ অধ্যক্ষ নীহার রঞ্জন রায় এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগ আহবায়ক এড. আজহারুল ইসলাম, ময়মনসিংহ মহিলা ডিগ্রী কলেজ অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার। মঞ্চে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রস্তাবিত মহানগর আওয়ামী লীগ আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. তাজুল ইসলাম খোকন, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সরকার মো: সব্যসাচী। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ডা: ফাতেমা তুজ জোহুরা পিয়া প্রমুখ।


ইংরেজ শাসন আমল থেকে দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় সবশেষ ২৫ শে মার্চ থেকে ১৬ ডিসেম্বর পূর্ণ বিজয় এর সংক্ষিপ্ত পটভূমি তুলে ধরে মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, তোমরা একটি ভাগ্যবান প্রজন্ম। কারণ এ প্রজন্মকে যারা লালন করো তারা বাংলাদেশের সঠিক ইতিহাসটা জানতে পেরেছ।
তিনি বলেন, আমরা যখন ছোট ছিলাম সঠিক ইতিহাসটা জানতে পারিনি। বাংলাদেশের কোথাও কোন পাঠ্যপুস্তকে আমাদের মুক্তিযোদ্ধের সঠিক ইতিহাসটা প্রকাশ করা হয়নি সে সময়।
মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, তোমরা যারা এই প্রজন্ম তোমারা ভাগ্যবান। তোমাদের সময় বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনার শক্তি আসিন রয়েছে। আমাদের শৈশব কৈশরে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীরা এই রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় ছিল। তারা আমাদের জানতে দেয়নি রাষ্ট্রের জন্মের পেছনে কার কতটা অবদান।
শান্ত বলেন, তারা আমাদেরকে জানতে দেয়নি রাষ্ট্রকে জন্ম দিতে গিয়ে কারা কারা প্রসব বেদনা সহ্য করেছিল। আজ স্বাধীনতার ইতিহাস তোমরা যতটুকু যান আমিও ততটুকু জানি। এটি বর্তমান রাষ্ট্র চালকদের সুবাধে হয়েছে।
তিনি বলেন, তোমরা ভগ্যবান এই জন্য তোমরা যান মুক্তিযুদ্ধে কার কতটুকু আবদান ছিল। তোমরা আজ জানতে পেরেছো কারণ তোমাদের পাঠ্যপুস্তকে এসেছে।


তিনি বলেন, যে মানুষটি বাংলাদেশের সাধিকারের জন্য, অধিকার আদায়ের জন্য নিজের জীবনের ১৩ বছর জেলখানার অন্ধকার প্রকষ্ঠে কাটিয়েছেন। যে মানুষটি কৈশরের বয়স থেকে মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য সংগ্রাম করেছিলেন। যে মানুষটি সেই সময়ের ৭ কোটি মানুষকে একটি জায়গায় দাড় করাতে চেয়েছিলেন ,সেই মানুষটি স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান।
তিনি বলেন, আর এই মানুষটির স্বাধীনতার ডাক, সেই ৭ ই মার্চের ভাষণও আমরা শৈশবে শুনতে পারিনি। কারণ তখন এই ভাষণটি নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।
তিনি বলেন, সেই সময় আমরা যারা কিছুটা হলেও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করতাম, তাদের প্রযন্ড কষ্ট হতো। যখন দেখতাম একাত্তরের নরঘাতক নিজামী, মোজাহিদ, সাঈদীরা বাংলাদেশের মন্ত্রীসভায় ঠাই পেয়েছে।
শান্ত বলেন, আমি যেমন একজন আওয়ামী লীগ কর্মীর সন্তান, নেতার সন্তান। তেমনি অনেই আছো যারা হয়তো বা বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের কর্মীর সন্তান বা সেই ধারায় বিশ্বাস করো। কিংবা বাংলাদেশ কমিউনিষ্ট পার্টি মতাদর্শের ধারার বিশ্বাসী কোন বাবা মা সন্তান। কিন্তু তোমারা তোমাদের চেতনাকে বেছে নিতে পারবে।
তিনি বলেন,তোমরা তোমাদের চেতনার জায়গা থেকে যে কোন দলকে সমর্থন করতে পারবে। কিন্তু আমি তোমাদের এই অঙ্গনে দাড়িয়ে তোমাদের প্রতি আহবান রাখবো। তোমাদের কাছে একটি মিনতি রাখবো বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» তুরাগে নেই খেলার মাঠ ও বিনোদন কেন্দ্র, বাধাগ্রস্থ হচ্ছে শিশুর স্বাভাবিক বিকাশ

» নিখোজ সংবাদ

» এস এসসি পরীক্ষায় উর্ত্তীর্ণ মেধাবীদের শুভেচ্ছা ও অভিন্দন

» গায়ে কেরোসিন ঢেলে ‘গৃহবধূর’ আগুনে পুড়িয়ে হত্যা

» ‘ফণী’ বাংলাদেশে ৬ ঘণ্টা অবস্থান করবে

» বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল অতিক্রম করছে ফণী

» উত্তরায় বাসার ছাদ থেকে ২ গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার

» বাংলাদেশে মহান মে দিবসের গুরুত্ব

» আশুলিয়া কাঠগড়ায় স্বামীকে আটকে স্ত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৪

» আজ মহান মে দিবস

» এসব কারণে স্ট্রোক হতে পারে!

» যে বিমান অনির্দিষ্টকাল উড়বে আকাশে!

» তুরাগে ৫৩৬ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার,আটক-৩

» নব গঠিত ৫৩ নং ওর্য়াড তুরাগের অনেক রাস্তা যেন কাদামাটির খাল

» জনপ্রিতিনিধিদের সংবর্ধণা দিবে উত্তরা প্রেসক্লাব সোসাইটি

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট

,

Times of Bengali

স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়-মিন্টু কলেজে মোহিত উর রহমান শান্ত

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত ॥
আমি আজকে তোমাদের কাছে একটি মিনতি করে যাই তোমরা যে যেখানেই দাড়িয়ে থাকো না কেন, সমাজের যেখানেই তোমাদের অবস্থান হোক বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়। কথাগুলো বলেছেন ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত।
শনিবার ১৬ ডিসেম্বর সকালে মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলমগীর মনসুর মিন্টু মেমোরিয়াল কলেজ ক্যাম্পাসে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তবে রাখেন তিনি ।
কলেজ অধ্যক্ষ নীহার রঞ্জন রায় এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগ আহবায়ক এড. আজহারুল ইসলাম, ময়মনসিংহ মহিলা ডিগ্রী কলেজ অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার। মঞ্চে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রস্তাবিত মহানগর আওয়ামী লীগ আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. তাজুল ইসলাম খোকন, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সরকার মো: সব্যসাচী। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ডা: ফাতেমা তুজ জোহুরা পিয়া প্রমুখ।


ইংরেজ শাসন আমল থেকে দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় সবশেষ ২৫ শে মার্চ থেকে ১৬ ডিসেম্বর পূর্ণ বিজয় এর সংক্ষিপ্ত পটভূমি তুলে ধরে মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, তোমরা একটি ভাগ্যবান প্রজন্ম। কারণ এ প্রজন্মকে যারা লালন করো তারা বাংলাদেশের সঠিক ইতিহাসটা জানতে পেরেছ।
তিনি বলেন, আমরা যখন ছোট ছিলাম সঠিক ইতিহাসটা জানতে পারিনি। বাংলাদেশের কোথাও কোন পাঠ্যপুস্তকে আমাদের মুক্তিযোদ্ধের সঠিক ইতিহাসটা প্রকাশ করা হয়নি সে সময়।
মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, তোমরা যারা এই প্রজন্ম তোমারা ভাগ্যবান। তোমাদের সময় বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনার শক্তি আসিন রয়েছে। আমাদের শৈশব কৈশরে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীরা এই রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় ছিল। তারা আমাদের জানতে দেয়নি রাষ্ট্রের জন্মের পেছনে কার কতটা অবদান।
শান্ত বলেন, তারা আমাদেরকে জানতে দেয়নি রাষ্ট্রকে জন্ম দিতে গিয়ে কারা কারা প্রসব বেদনা সহ্য করেছিল। আজ স্বাধীনতার ইতিহাস তোমরা যতটুকু যান আমিও ততটুকু জানি। এটি বর্তমান রাষ্ট্র চালকদের সুবাধে হয়েছে।
তিনি বলেন, তোমরা ভগ্যবান এই জন্য তোমরা যান মুক্তিযুদ্ধে কার কতটুকু আবদান ছিল। তোমরা আজ জানতে পেরেছো কারণ তোমাদের পাঠ্যপুস্তকে এসেছে।


তিনি বলেন, যে মানুষটি বাংলাদেশের সাধিকারের জন্য, অধিকার আদায়ের জন্য নিজের জীবনের ১৩ বছর জেলখানার অন্ধকার প্রকষ্ঠে কাটিয়েছেন। যে মানুষটি কৈশরের বয়স থেকে মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য সংগ্রাম করেছিলেন। যে মানুষটি সেই সময়ের ৭ কোটি মানুষকে একটি জায়গায় দাড় করাতে চেয়েছিলেন ,সেই মানুষটি স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান।
তিনি বলেন, আর এই মানুষটির স্বাধীনতার ডাক, সেই ৭ ই মার্চের ভাষণও আমরা শৈশবে শুনতে পারিনি। কারণ তখন এই ভাষণটি নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।
তিনি বলেন, সেই সময় আমরা যারা কিছুটা হলেও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করতাম, তাদের প্রযন্ড কষ্ট হতো। যখন দেখতাম একাত্তরের নরঘাতক নিজামী, মোজাহিদ, সাঈদীরা বাংলাদেশের মন্ত্রীসভায় ঠাই পেয়েছে।
শান্ত বলেন, আমি যেমন একজন আওয়ামী লীগ কর্মীর সন্তান, নেতার সন্তান। তেমনি অনেই আছো যারা হয়তো বা বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের কর্মীর সন্তান বা সেই ধারায় বিশ্বাস করো। কিংবা বাংলাদেশ কমিউনিষ্ট পার্টি মতাদর্শের ধারার বিশ্বাসী কোন বাবা মা সন্তান। কিন্তু তোমারা তোমাদের চেতনাকে বেছে নিতে পারবে।
তিনি বলেন,তোমরা তোমাদের চেতনার জায়গা থেকে যে কোন দলকে সমর্থন করতে পারবে। কিন্তু আমি তোমাদের এই অঙ্গনে দাড়িয়ে তোমাদের প্রতি আহবান রাখবো। তোমাদের কাছে একটি মিনতি রাখবো বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট