সকাল ৮:৫৮ | মঙ্গলবার | ২১শে মে, ২০১৯ ইং | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রথম দিনেই চরাঞ্চল জয় করলেন ডা: ফাতেমা তুজ জোহরা পিয়া

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত ॥
ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে এলেও শীতার্থদের মাঝে বিতরণ করেছেন শীতবস্ত্র। শুক্রবার চরাঞ্চলে এলেন ডা: পিয়া। তখন বিকাল। সমবেতদের উদ্দেশ্যে তিনি বললেন ময়মনসিংহের উন্নয়নে চরাঞ্চলের ভূমিকা অনস্বীকার্য। একথা বলে চরাঞ্চলের উন্নয়নের উপর আলোকপাত করলেন। বললেন- চর নিয়ে তার আশাবাদ ও স্বপ্নের কথা। চরাঞ্চলের উন্নয়নের অগ্রাধিকার তুলে ধরতে গিয়ে বললেন-চর নীলক্ষিয়াতেই হাসপাতাল দরকার।
ময়মনসিংহের মাটি ও মানুষের নেতা ধর্মমন্ত্রী আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সুযোগ্য কন্যা. মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্তর ছোট বোন ডা: ফাতেমা তুজ জোহরা পিয়া। ময়মনসিংহের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক পরিবারের সদস্য ডা: পিয়া।


তরুণ সমাজসেবক হিসেবে ইতোমধ্যে তার ভূমিকার কথা মানুষ জেনে গেছেন। শুক্রবার তিনি চরাঞ্চলে প্রথমবার এলেন নিজস্ব পরিচয়ে। তিনি জয় করলেন চরাঞ্চল। তার উদ্যোগ, ভূমিকা ও বক্তব্যে উদ্দীপ্ত চরাঞ্চল। সবার মুগ্ধতা ও উষ্ণতায় ডা: পিয়া লেংড়া বাজারে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন স্থানীয় লোকজনকে।
শেষ বিকেলের আলোচনা সভায় ডা: ফাতেমা তুজ জোহরা পিয়া ছিলেন প্রধান অতিথি। বিশেষে অতিথি ছিলেন ৭নং চরনিলক্ষিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি আলহাজ তোফাজ্জল হোসেন তোতা, চরনিলক্ষিয়া উচ্চ বিদ্যালয় এর প্রধান শিক্ষক আ: রহিম ফকির, ডা: দেবাশীষ মন্ডল, ডা: আশিকুর রহমান, জেলা যুবলীগ সদস্য আসাদুজ্জামান রুমেল, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ পান্না।
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা রোহিতউজ্জামান নাজমুলের উদ্যোগ ফরহাদ আজমের সহযোগিতায় চরাঞ্চলের লেংড়া বাজার দিনভর ছিল উৎসবমুখর। মানবতার জয়গানে পূর্ণ। হৃদয়, নাঈম, তানভীর, নাসরুল্লাহ মাশরিক, অনুপম প্রমুখ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীরা কর্মসূচিতে অংশ নেন।
রাজনৈতিক পরম্পরায় বেড়ে উঠা ডা: পিয়া চরাঞ্চলে রাজনীতি নয় মানবিকতার মিশন নিয়ে আসেন। তিনি চরাঞ্চলবাসীর প্রতি ব্যক্তিগত শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন-আমার গর্ব আমি বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। আমার আব্বা বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমান আপনাদের লোক। তার সুদীর্ঘ রাজনৈতিক পথচলা সম্পর্কে আপনারা জ্ঞাত আছেন। তিনি আপনাদের পাশে ছিলেন, আছেন, থাকবেন।


তিনি বলেন, আমার আদর্শ, মূল্যবোধের জায়গাটি আমার বড়ভাই মোহিত উর রহমান শান্ত নিজ হাতে গড়ে দিয়েছেন। আমরা যেখানেই থাকি না কেন মূলটি পোতা তাকে ময়মনসিংহ জুড়ে।
ডা: পিয়া ২০০১ সালের নির্বাচনে প্রচারাভিযানে চরাঞ্চলে তার প্রথম আসার স্মৃতিস্মরণ করেন। তিনি বলেন, আমার জন্ম আকুয়া মড়লপাড়ায়, কিন্তু আমার অস্তিত্বে জড়িয়ে আছে চরাঞ্চল।
এই সেই ময়মনসিংহের চরাঞ্চল-যেখানে আমার পিতা আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমান এবং আমার ভাই মোহিত উর রহমান শান্ত এর রাজনৈতিক শিকড় আপনাদের সমর্থনে সমৃদ্ধ, তেমনি এটা সেই চর যেখানে আমার প্রয়াত ভাই ডা: মুশফিকুর রহমান শুভ কাজ করে গেছেন মানুষের জন্য আর আপনারা তাকে ভালোবাসা দিয়েছিলেন।
সেজন্য চরাঞ্চলেই ডা: শুভর নামে হাসপাতাল হচ্ছে বলে উল্লেখ্য করে ডা: পিয়া বলেন, চরনীলক্ষিয়ায় আরেকটি হাসপাতাল হওয়া প্রয়োজন। প্রয়োজন জনপ্রত্যাশিত রাস্তাঘাটের উন্নয়ন।
ডা: পিয়া বলেন-চরাঞ্চল আওয়ামী লীগ মনা। এখানে রাজনৈতিক অফিস থাকা প্রয়োজন। তিনি খেলাঘর/সংগঠন করে উন্নয়নে ভূমিকা রাখার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, আপনাদের স্বাস্থ্যসেবার প্রয়োজনে আমাকে এবং আয়োজক ও মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীদের সব সময় পাশে পাবেন।


তিনি অনুষ্ঠানের আয়োজক রোহিতউজ্জামান নাজমুলের দাবি রাস্তা পুন:সংস্কার, আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ কার্যালয়, ছাত্রলীগ কমিটির ব্যাপারে সহযোগিতার বিষয়ে সর্বপোরি সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।
প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কন্যা পুতুল অটিষ্টিক শিশুদের নিয়ে কাজ করে মানবতার জন্য যে ভূমিকা রাখছেন তা আজ বিশ্বেস্বীকৃতি পেয়েছে। তিনি বলেন- একজন চিকিৎসক হিসেবে আমিও আর্তবিপন্ন মানুষের চিকিৎসাসেবাকেই জীবনের ব্রত হিসাবে নিয়েছি।
তিনি বলেন, শিক্ষায় চরাঞ্চলকে এগিয়ে যেতে হবে। আমি চাই দেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে, মেডিকেল কলেজে চরাঞ্চলের ছেলে মেয়েরা থাকবে। তিনি বলেন, আমার বড় ভাই মোহিত উর রহমান শান্তকে আপনারা নিজেদের মনে করে দেখবেন। তার কখনো ভূল হলে সুধরে দিবেন, পাশ থেকে কখন সরে যাবেন না এই অনুরোধ থাকবে।
অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ৭নং চরনিলক্ষিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি আলহাজ তোফাজ্জল হোসেন তোতা বলেন, অতীতে এ জনপদের রাজনীতিতে যেভাবে অধ্যক্ষ মতিউর রহমান ছিলেন তেমনি মোহিত উর রহমান শান্ত আমাদের হৃদয়ে থাকবেন। তিনি বলেন আজ আমরা পরিপূর্ন। আমাদের রাজনীতির প্রাণপরুষ অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের পরিবারের সবচাইতে কনিষ্ঠজনও আমাদের মাঝে এসে পৌছেছেন। তিনি বলেন এ পরিবার যেমনি আমাদের চরাঞ্চলের সাথে, পাশে, আছে আমরাও সেভাবেই তাদের পাশে থাকবো কথা দিচ্ছি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» নিখোজ সংবাদ

» এস এসসি পরীক্ষায় উর্ত্তীর্ণ মেধাবীদের শুভেচ্ছা ও অভিন্দন

» গায়ে কেরোসিন ঢেলে ‘গৃহবধূর’ আগুনে পুড়িয়ে হত্যা

» ‘ফণী’ বাংলাদেশে ৬ ঘণ্টা অবস্থান করবে

» বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল অতিক্রম করছে ফণী

» উত্তরায় বাসার ছাদ থেকে ২ গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার

» বাংলাদেশে মহান মে দিবসের গুরুত্ব

» আশুলিয়া কাঠগড়ায় স্বামীকে আটকে স্ত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৪

» আজ মহান মে দিবস

» এসব কারণে স্ট্রোক হতে পারে!

» যে বিমান অনির্দিষ্টকাল উড়বে আকাশে!

» তুরাগে ৫৩৬ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার,আটক-৩

» নব গঠিত ৫৩ নং ওর্য়াড তুরাগের অনেক রাস্তা যেন কাদামাটির খাল

» জনপ্রিতিনিধিদের সংবর্ধণা দিবে উত্তরা প্রেসক্লাব সোসাইটি

» আউশকান্দি উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি ১২ ঘন্টাই বন্ধ থাকে, স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত ৪৪টি গ্রামের মানুষ।

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট

,

Times of Bengali

প্রথম দিনেই চরাঞ্চল জয় করলেন ডা: ফাতেমা তুজ জোহরা পিয়া

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত ॥
ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে এলেও শীতার্থদের মাঝে বিতরণ করেছেন শীতবস্ত্র। শুক্রবার চরাঞ্চলে এলেন ডা: পিয়া। তখন বিকাল। সমবেতদের উদ্দেশ্যে তিনি বললেন ময়মনসিংহের উন্নয়নে চরাঞ্চলের ভূমিকা অনস্বীকার্য। একথা বলে চরাঞ্চলের উন্নয়নের উপর আলোকপাত করলেন। বললেন- চর নিয়ে তার আশাবাদ ও স্বপ্নের কথা। চরাঞ্চলের উন্নয়নের অগ্রাধিকার তুলে ধরতে গিয়ে বললেন-চর নীলক্ষিয়াতেই হাসপাতাল দরকার।
ময়মনসিংহের মাটি ও মানুষের নেতা ধর্মমন্ত্রী আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সুযোগ্য কন্যা. মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্তর ছোট বোন ডা: ফাতেমা তুজ জোহরা পিয়া। ময়মনসিংহের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক পরিবারের সদস্য ডা: পিয়া।


তরুণ সমাজসেবক হিসেবে ইতোমধ্যে তার ভূমিকার কথা মানুষ জেনে গেছেন। শুক্রবার তিনি চরাঞ্চলে প্রথমবার এলেন নিজস্ব পরিচয়ে। তিনি জয় করলেন চরাঞ্চল। তার উদ্যোগ, ভূমিকা ও বক্তব্যে উদ্দীপ্ত চরাঞ্চল। সবার মুগ্ধতা ও উষ্ণতায় ডা: পিয়া লেংড়া বাজারে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন স্থানীয় লোকজনকে।
শেষ বিকেলের আলোচনা সভায় ডা: ফাতেমা তুজ জোহরা পিয়া ছিলেন প্রধান অতিথি। বিশেষে অতিথি ছিলেন ৭নং চরনিলক্ষিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি আলহাজ তোফাজ্জল হোসেন তোতা, চরনিলক্ষিয়া উচ্চ বিদ্যালয় এর প্রধান শিক্ষক আ: রহিম ফকির, ডা: দেবাশীষ মন্ডল, ডা: আশিকুর রহমান, জেলা যুবলীগ সদস্য আসাদুজ্জামান রুমেল, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ পান্না।
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা রোহিতউজ্জামান নাজমুলের উদ্যোগ ফরহাদ আজমের সহযোগিতায় চরাঞ্চলের লেংড়া বাজার দিনভর ছিল উৎসবমুখর। মানবতার জয়গানে পূর্ণ। হৃদয়, নাঈম, তানভীর, নাসরুল্লাহ মাশরিক, অনুপম প্রমুখ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীরা কর্মসূচিতে অংশ নেন।
রাজনৈতিক পরম্পরায় বেড়ে উঠা ডা: পিয়া চরাঞ্চলে রাজনীতি নয় মানবিকতার মিশন নিয়ে আসেন। তিনি চরাঞ্চলবাসীর প্রতি ব্যক্তিগত শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন-আমার গর্ব আমি বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। আমার আব্বা বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমান আপনাদের লোক। তার সুদীর্ঘ রাজনৈতিক পথচলা সম্পর্কে আপনারা জ্ঞাত আছেন। তিনি আপনাদের পাশে ছিলেন, আছেন, থাকবেন।


তিনি বলেন, আমার আদর্শ, মূল্যবোধের জায়গাটি আমার বড়ভাই মোহিত উর রহমান শান্ত নিজ হাতে গড়ে দিয়েছেন। আমরা যেখানেই থাকি না কেন মূলটি পোতা তাকে ময়মনসিংহ জুড়ে।
ডা: পিয়া ২০০১ সালের নির্বাচনে প্রচারাভিযানে চরাঞ্চলে তার প্রথম আসার স্মৃতিস্মরণ করেন। তিনি বলেন, আমার জন্ম আকুয়া মড়লপাড়ায়, কিন্তু আমার অস্তিত্বে জড়িয়ে আছে চরাঞ্চল।
এই সেই ময়মনসিংহের চরাঞ্চল-যেখানে আমার পিতা আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমান এবং আমার ভাই মোহিত উর রহমান শান্ত এর রাজনৈতিক শিকড় আপনাদের সমর্থনে সমৃদ্ধ, তেমনি এটা সেই চর যেখানে আমার প্রয়াত ভাই ডা: মুশফিকুর রহমান শুভ কাজ করে গেছেন মানুষের জন্য আর আপনারা তাকে ভালোবাসা দিয়েছিলেন।
সেজন্য চরাঞ্চলেই ডা: শুভর নামে হাসপাতাল হচ্ছে বলে উল্লেখ্য করে ডা: পিয়া বলেন, চরনীলক্ষিয়ায় আরেকটি হাসপাতাল হওয়া প্রয়োজন। প্রয়োজন জনপ্রত্যাশিত রাস্তাঘাটের উন্নয়ন।
ডা: পিয়া বলেন-চরাঞ্চল আওয়ামী লীগ মনা। এখানে রাজনৈতিক অফিস থাকা প্রয়োজন। তিনি খেলাঘর/সংগঠন করে উন্নয়নে ভূমিকা রাখার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, আপনাদের স্বাস্থ্যসেবার প্রয়োজনে আমাকে এবং আয়োজক ও মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীদের সব সময় পাশে পাবেন।


তিনি অনুষ্ঠানের আয়োজক রোহিতউজ্জামান নাজমুলের দাবি রাস্তা পুন:সংস্কার, আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ কার্যালয়, ছাত্রলীগ কমিটির ব্যাপারে সহযোগিতার বিষয়ে সর্বপোরি সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।
প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কন্যা পুতুল অটিষ্টিক শিশুদের নিয়ে কাজ করে মানবতার জন্য যে ভূমিকা রাখছেন তা আজ বিশ্বেস্বীকৃতি পেয়েছে। তিনি বলেন- একজন চিকিৎসক হিসেবে আমিও আর্তবিপন্ন মানুষের চিকিৎসাসেবাকেই জীবনের ব্রত হিসাবে নিয়েছি।
তিনি বলেন, শিক্ষায় চরাঞ্চলকে এগিয়ে যেতে হবে। আমি চাই দেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে, মেডিকেল কলেজে চরাঞ্চলের ছেলে মেয়েরা থাকবে। তিনি বলেন, আমার বড় ভাই মোহিত উর রহমান শান্তকে আপনারা নিজেদের মনে করে দেখবেন। তার কখনো ভূল হলে সুধরে দিবেন, পাশ থেকে কখন সরে যাবেন না এই অনুরোধ থাকবে।
অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ৭নং চরনিলক্ষিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি আলহাজ তোফাজ্জল হোসেন তোতা বলেন, অতীতে এ জনপদের রাজনীতিতে যেভাবে অধ্যক্ষ মতিউর রহমান ছিলেন তেমনি মোহিত উর রহমান শান্ত আমাদের হৃদয়ে থাকবেন। তিনি বলেন আজ আমরা পরিপূর্ন। আমাদের রাজনীতির প্রাণপরুষ অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের পরিবারের সবচাইতে কনিষ্ঠজনও আমাদের মাঝে এসে পৌছেছেন। তিনি বলেন এ পরিবার যেমনি আমাদের চরাঞ্চলের সাথে, পাশে, আছে আমরাও সেভাবেই তাদের পাশে থাকবো কথা দিচ্ছি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট