প্রকাশিত : Wed, Aug 1st, 2018

রূপগঞ্জ ছাত্রদলে বিতর্কিতরা!

নারায়ণগঞ্জের গুরুত্বপূর্ণ উপজেলার রূপগঞ্জ। জেলা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি হয়েছেন রূপগঞ্জের বাসিন্দা। এখানে সব নেতারই বলয় শক্ত করতে থানা ছাত্রদলের কমিটি গঠনেও জোর লবিং চলছে। তবে থানা ছাত্রদলের কমিটিতে প্রবেশ করতে মাদকাসক্ত ও শিবিরকর্মীসহ একাধিক ছাত্র নেতা শীর্ষ মহলে যোগাযোগ করছেন। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ নিজের পক্ষে নিতে কাজ করছেন শীর্ষ নেতারাও। তবে প্রকৃত ত্যাগী নেতারা ছাত্রদল কমিটি থেকেও বাদ পড়তে পারে বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। কারণ মাদকাসক্ত ও শিবিরকর্মীদের টাকা এবং তদবিরের কাছে হার মানতে হবে ত্যাগীদের। এসব বিষয়ে রূপগঞ্জের সর্বত্রই এখন আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে। জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামানের বাড়ি রূপগঞ্জের রূপসী কাজীপাড়া, জেলা যুবদলের সভাপতি মোশারফ হোসেনের বাড়ি রূপগঞ্জের বিরাব, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনির বাড়ি রূপগঞ্জের দাউদপুরে, জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি আনোয়ার সাদাত সায়েমের বাড়ি রূপগঞ্জের মর্তুজাবাদ ও সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুর রহমানের বাড়িও মর্তুজাবাদ। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রূপগঞ্জ থানা ছাত্রদলের সভাপতি পদে জোর লবিং করছেন গোলাকান্দাইলের ওমর হোসেন, বিতর্কিত আবু মোহাম্মদ মাসুম। একই পদের জন্য তদবির চালাচ্ছেন। অপরদিকে সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য তদবির, লবিং করছেন ভুলতার শফিকুল ইসলাম। প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কায়েতপাড়া এলাকার বাসিন্দা আজিম সরকার। ইতোমধ্যে মাদকাসক্ত হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন আবু মোহাম্মদ মাসুম। সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন শিবির নেতা আজিম সরকার। শিবির ছেড়ে কয়েক বছর ধরেই কাজী মনিরের হাত ধরে ছাত্র রাজনীতি করছেন। এখন এ নেতা সাধারণ সম্পাদকের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠেছেন। তবে ছাত্রদলের ত্যাগী নেতাকর্মীরা থানা কমিটিতে শিবির কর্মীর প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছেন। আবু মোহাম্মদ মাসুম জানান, মাদকের বিষয়টি পুরোপুরি সঠিক নয়। তাছাড়া ছাত্র রাজনীতি করতে গিয়ে মামলা ও হামলার শিকার হয়েছি। নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি জানান, ছাত্রদলের কোনো কমিটিতেই মাদকাসক্তদের স্থান দেয়া হবে না। কেহ শিবিরকর্মী প্রমাণ পেলেও তাদের কমিটিতে রাখা হবে না। শুধু রূপগঞ্জ নয়, জেলার সবকটি থানাতেই ছাত্রদলের শক্তিশালী ও ত্যাগী নেতাদের দিয়ে কমিটি গঠন করা হবে।

2,812 total views, 2 views today

Related Posts

Share

Comments

comments

রিপোর্টার সম্পর্কে

%d bloggers like this: