রাত ১০:১৯ | মঙ্গলবার | ১৮ই জুন, ২০১৯ ইং | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

হুমকির মুখে চা শিল্প , দাবীতে আপসহীন চা শ্রমিক !!

আনোয়ার হোসেন ; মাধবপুর প্রতিনিধি ::   শ্রমিকদের আন্দোলনের মুখে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার নোয়াপাড়া চা বাগান বন্ধ করে দিয়েছে বাগান কর্তৃপক্ষ। বাগান ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী অপসারণের দাবিতে শ্রমিকদের ধর্মঘটের প্রেক্ষিতে বাগান বন্ধর ঘোষণা দিলো মালিকপক্ষ। ৩দিন ধরে এই দাবিতে ধর্মঘট করছে শ্রমিকরা।
প্রশাসনের উদ্যোগে চা বাগানে শ্রমিক ধর্মঘট প্রত্যাহারের জন্য সোমবার (২৭ মে) দিনভর বৈঠক হলেও শ্রমিকরা ধর্মঘট শ্রমিকরা প্রত্যাহার করেনি।
এতে করে শ্রমিকদের এ দাবিকে বেআইনি ঘোষণা করে বাগান বন্ধের ঘোষণা করেছে বাগান কর্তৃপক্ষ। সোমবার বিকেলে বাগানের ডিজিএম রিয়াজ উদ্দিন চিঠি ইস্যু করে বাগান বন্ধের ঘোষণা করেন।
এ ব্যাপারে রিয়াজ উদ্দিন বলেন শ্রম আইনের ১৩(১) ধারা মতে শ্রমিকদের এ ধরনের হঠ্যাৎ ধর্মঘট সম্পূর্ণ বেআইনি তাই বাধ্য হয়ে চা বাগান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।বাগানের সমস্যা নিরসনের জন্য সোমবার সকালে শ্রীমঙ্গল শ্রম অধিদপ্তরের উপপরিচালক নাহিদুল ইসলাম, হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম রাজু আহমেদ, লস্করপুর ভ্যালি চা শ্রমিক সভাপতি রবীন্দ্র গৌড় সহ শ্রমিক নেতাদের উদ্যোগে সোমবার সকালে নোয়াপাড়া চা বাগানে শ্রমিকদের নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
বৈঠকে শ্রমিকরা দাবি করেন ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী নিঃশর্তে বাগান ছেড়ে চলে যাওয়ার দাবি করেন। শ্রমিকদের এ দাবী বাগান কর্তৃপক্ষ মেনে না নেওয়ায় শ্রমিকরা বৈঠক ত্যাগ করে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।
লস্করপুর ভ্যালি সভাপতি রবীন্দ্র গৌড় বলেন, এখন শ্রমিকদের একটাই দাবি ব্যবস্থাপক না যাওয়া পর্যন্ত লাগাতার কর্ম বিরতি চলবে। শ্রীমঙ্গল শ্রম উপ পরিচালক নাহিদুল ইসলাম বলেন এটি কোন বড় সমস্যা ছিলনা তবে শ্রমিক ও মালিক পক্ষ যার যার অবস্থানে অনড় থাকায় সমস্যাটি সমাধান হয়নি।
তিনি বলেন, সরকারের  পক্ষে ন্যায্যতার ভিত্তিতে আমরা একটি সমাধান চেয়েছিলাম এখন উভয় পক্ষ অনড় থাকায় বাগান ও শ্রমিক আর্থিক ক্ষতির মধ্যে পড়বে। বাগান বন্ধ ঘোষণা হওয়ায় আগামী সপ্তাহে শ্রমিকরা রেশন তলব পাবেন না।
উল্লেখ্য গত শনিবার সকালে চা বাগান শ্রমিকদের সাথে বাগান ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী শ্রমিকদের ৩৫ দফা দাবি নিয়ে  দর কষাকষির এক পর্যায়ে শ্রমিকরা ক্ষুব্ধ হয়ে কাজে যোগ না দিয়ে ব্যবস্থাপকের অপসারণ চেয়ে কর্মবিরতির ডাক দেয়ে। ৩ দিনের কর্ম বিরতিতে চা বাগানের ভরা মৌসুমে প্রায় ১৫ লাখ টাকার বেশি ক্ষতি হয়েছে বলে বাগানের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» �BANGLADESH vs WEST INDIES Live Comentry । বাংলাদেশ বনাম �ওয়েস্ট ইন্ডিস সরাসরি ধারাভাষ্য�

» উত্তরা পশ্চিম থানার ‘নাগরিক তথ্য সংগ্রহ সপ্তাহ-২০১৯’ র‌্যালি

» দুই শতাধিক সুবিধাবঞ্চিত শিশুকে এক্সওয়ার ঈদ উপহার 

» ঈদ উপলক্ষে উত্তরার আবাসিকে নিরাপত্তা জোরদার

» উত্তরার আব্দুল্লাহপুরে এখন ঘর মুখো মানুষের ভিড় 

» শুভ আলোর বিশিষ্টজনদের সম্মানে ইফতার মাহফিল

» স্বপ্ন মাল্টিমিডিয়া ব্যানারে আসছে থমাস সরকার লিওনার্দ্যে এর রোমান্টিক গানের মিউজিক ভিডিও ”মেঘলা আকাশ ”

» স্বপ্ন মাল্টিমিডিয়া ব্যানারে আসছে শিবলু মাহমুদ এর রোমান্টিক গানের মিউজিক ভিডিও ”ধোঁকা ”

» শিন শিন জাপান হসপিটালে এ বিনামূল্যে চিকিৎসা

» ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের মাঝে অনুদান বিতরণ সম্পন্ন ডিএনসিসি ৫০নং ওয়ার্ড

» হুমকির মুখে চা শিল্প , দাবীতে আপসহীন চা শ্রমিক !!

» শাহজালালে ৩৪ শত ইয়াবাসহ একযাত্রী আটক

» উত্তরা ৫১ নং ওর্য়াড যুবলীগের ইফতার মাহফিল

» এবার উত্তরায় চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু

» টঙ্গী সাংবাদিক ক্লাবের কার্য নির্বাহী কমিটি ঘোষনা সভাপতি নোয়াব আলী ও সম্পাদক হালিম রিজভী

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট

,

হুমকির মুখে চা শিল্প , দাবীতে আপসহীন চা শ্রমিক !!

আনোয়ার হোসেন ; মাধবপুর প্রতিনিধি ::   শ্রমিকদের আন্দোলনের মুখে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার নোয়াপাড়া চা বাগান বন্ধ করে দিয়েছে বাগান কর্তৃপক্ষ। বাগান ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী অপসারণের দাবিতে শ্রমিকদের ধর্মঘটের প্রেক্ষিতে বাগান বন্ধর ঘোষণা দিলো মালিকপক্ষ। ৩দিন ধরে এই দাবিতে ধর্মঘট করছে শ্রমিকরা।
প্রশাসনের উদ্যোগে চা বাগানে শ্রমিক ধর্মঘট প্রত্যাহারের জন্য সোমবার (২৭ মে) দিনভর বৈঠক হলেও শ্রমিকরা ধর্মঘট শ্রমিকরা প্রত্যাহার করেনি।
এতে করে শ্রমিকদের এ দাবিকে বেআইনি ঘোষণা করে বাগান বন্ধের ঘোষণা করেছে বাগান কর্তৃপক্ষ। সোমবার বিকেলে বাগানের ডিজিএম রিয়াজ উদ্দিন চিঠি ইস্যু করে বাগান বন্ধের ঘোষণা করেন।
এ ব্যাপারে রিয়াজ উদ্দিন বলেন শ্রম আইনের ১৩(১) ধারা মতে শ্রমিকদের এ ধরনের হঠ্যাৎ ধর্মঘট সম্পূর্ণ বেআইনি তাই বাধ্য হয়ে চা বাগান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।বাগানের সমস্যা নিরসনের জন্য সোমবার সকালে শ্রীমঙ্গল শ্রম অধিদপ্তরের উপপরিচালক নাহিদুল ইসলাম, হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম রাজু আহমেদ, লস্করপুর ভ্যালি চা শ্রমিক সভাপতি রবীন্দ্র গৌড় সহ শ্রমিক নেতাদের উদ্যোগে সোমবার সকালে নোয়াপাড়া চা বাগানে শ্রমিকদের নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
বৈঠকে শ্রমিকরা দাবি করেন ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী নিঃশর্তে বাগান ছেড়ে চলে যাওয়ার দাবি করেন। শ্রমিকদের এ দাবী বাগান কর্তৃপক্ষ মেনে না নেওয়ায় শ্রমিকরা বৈঠক ত্যাগ করে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।
লস্করপুর ভ্যালি সভাপতি রবীন্দ্র গৌড় বলেন, এখন শ্রমিকদের একটাই দাবি ব্যবস্থাপক না যাওয়া পর্যন্ত লাগাতার কর্ম বিরতি চলবে। শ্রীমঙ্গল শ্রম উপ পরিচালক নাহিদুল ইসলাম বলেন এটি কোন বড় সমস্যা ছিলনা তবে শ্রমিক ও মালিক পক্ষ যার যার অবস্থানে অনড় থাকায় সমস্যাটি সমাধান হয়নি।
তিনি বলেন, সরকারের  পক্ষে ন্যায্যতার ভিত্তিতে আমরা একটি সমাধান চেয়েছিলাম এখন উভয় পক্ষ অনড় থাকায় বাগান ও শ্রমিক আর্থিক ক্ষতির মধ্যে পড়বে। বাগান বন্ধ ঘোষণা হওয়ায় আগামী সপ্তাহে শ্রমিকরা রেশন তলব পাবেন না।
উল্লেখ্য গত শনিবার সকালে চা বাগান শ্রমিকদের সাথে বাগান ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী শ্রমিকদের ৩৫ দফা দাবি নিয়ে  দর কষাকষির এক পর্যায়ে শ্রমিকরা ক্ষুব্ধ হয়ে কাজে যোগ না দিয়ে ব্যবস্থাপকের অপসারণ চেয়ে কর্মবিরতির ডাক দেয়ে। ৩ দিনের কর্ম বিরতিতে চা বাগানের ভরা মৌসুমে প্রায় ১৫ লাখ টাকার বেশি ক্ষতি হয়েছে বলে বাগানের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে।

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট