সকাল ১১:২৬ | বৃহস্পতিবার | ২২শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৭ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

হুমকির মুখে চা শিল্প , দাবীতে আপসহীন চা শ্রমিক !!

আনোয়ার হোসেন ; মাধবপুর প্রতিনিধি ::   শ্রমিকদের আন্দোলনের মুখে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার নোয়াপাড়া চা বাগান বন্ধ করে দিয়েছে বাগান কর্তৃপক্ষ। বাগান ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী অপসারণের দাবিতে শ্রমিকদের ধর্মঘটের প্রেক্ষিতে বাগান বন্ধর ঘোষণা দিলো মালিকপক্ষ। ৩দিন ধরে এই দাবিতে ধর্মঘট করছে শ্রমিকরা।
প্রশাসনের উদ্যোগে চা বাগানে শ্রমিক ধর্মঘট প্রত্যাহারের জন্য সোমবার (২৭ মে) দিনভর বৈঠক হলেও শ্রমিকরা ধর্মঘট শ্রমিকরা প্রত্যাহার করেনি।
এতে করে শ্রমিকদের এ দাবিকে বেআইনি ঘোষণা করে বাগান বন্ধের ঘোষণা করেছে বাগান কর্তৃপক্ষ। সোমবার বিকেলে বাগানের ডিজিএম রিয়াজ উদ্দিন চিঠি ইস্যু করে বাগান বন্ধের ঘোষণা করেন।
এ ব্যাপারে রিয়াজ উদ্দিন বলেন শ্রম আইনের ১৩(১) ধারা মতে শ্রমিকদের এ ধরনের হঠ্যাৎ ধর্মঘট সম্পূর্ণ বেআইনি তাই বাধ্য হয়ে চা বাগান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।বাগানের সমস্যা নিরসনের জন্য সোমবার সকালে শ্রীমঙ্গল শ্রম অধিদপ্তরের উপপরিচালক নাহিদুল ইসলাম, হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম রাজু আহমেদ, লস্করপুর ভ্যালি চা শ্রমিক সভাপতি রবীন্দ্র গৌড় সহ শ্রমিক নেতাদের উদ্যোগে সোমবার সকালে নোয়াপাড়া চা বাগানে শ্রমিকদের নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
বৈঠকে শ্রমিকরা দাবি করেন ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী নিঃশর্তে বাগান ছেড়ে চলে যাওয়ার দাবি করেন। শ্রমিকদের এ দাবী বাগান কর্তৃপক্ষ মেনে না নেওয়ায় শ্রমিকরা বৈঠক ত্যাগ করে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।
লস্করপুর ভ্যালি সভাপতি রবীন্দ্র গৌড় বলেন, এখন শ্রমিকদের একটাই দাবি ব্যবস্থাপক না যাওয়া পর্যন্ত লাগাতার কর্ম বিরতি চলবে। শ্রীমঙ্গল শ্রম উপ পরিচালক নাহিদুল ইসলাম বলেন এটি কোন বড় সমস্যা ছিলনা তবে শ্রমিক ও মালিক পক্ষ যার যার অবস্থানে অনড় থাকায় সমস্যাটি সমাধান হয়নি।
তিনি বলেন, সরকারের  পক্ষে ন্যায্যতার ভিত্তিতে আমরা একটি সমাধান চেয়েছিলাম এখন উভয় পক্ষ অনড় থাকায় বাগান ও শ্রমিক আর্থিক ক্ষতির মধ্যে পড়বে। বাগান বন্ধ ঘোষণা হওয়ায় আগামী সপ্তাহে শ্রমিকরা রেশন তলব পাবেন না।
উল্লেখ্য গত শনিবার সকালে চা বাগান শ্রমিকদের সাথে বাগান ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী শ্রমিকদের ৩৫ দফা দাবি নিয়ে  দর কষাকষির এক পর্যায়ে শ্রমিকরা ক্ষুব্ধ হয়ে কাজে যোগ না দিয়ে ব্যবস্থাপকের অপসারণ চেয়ে কর্মবিরতির ডাক দেয়ে। ৩ দিনের কর্ম বিরতিতে চা বাগানের ভরা মৌসুমে প্রায় ১৫ লাখ টাকার বেশি ক্ষতি হয়েছে বলে বাগানের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» উত্তরায় ডেঙ্গুতে মাইলষ্টোন স্কুল ছাত্রের মৃত্যু

» রাজধানীর তুরাগ থানায় জেন্ডার বেজড ভায়োলেন্স সচেতনতা সভা অনুষ্ঠিত

» ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে উত্তরা ট্রাফিক পুলিশের র‌্যালী

» তুরাগে পুলিশ পরিচয়ে প্রতারণায় আটক-১

» ডিএনসিসি-৫১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শরীফুর রহমানকে সংবর্ধনা

» ভর বর্ষায় খোড়াখুড়ি, দূর্ভোগে উত্তরার মানুষ

» জেনে নিন, ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ ও প্রতিকার

» ঝাড় ফুঁক দিয়েই নারী-শিশু ধর্ষণ করতেন ইমাম

» সাংবাদিকদের মাঝে ঐক্যের বিকল্প নেই: বিএমএসএফ

» তুরাগে পড়ে যাওয়া ট্যাক্সিক্যাবের সন্ধান মেলেনি, উদ্ধার কাজ চলছে

» উত্তরায় কিশোর গ্যাং গ্রুপের ১৪ সদস্য আটক

» বাংলাদেশে অফিস চালু করছে ফেসবুক

» উচ্চমাধ্যমিকের ফল প্রকাশ: পাসের হার ৭৩.৯৩%

» বিয়ের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নববধূকে তালাক যৌতুকে মোটরসাইকেল না পেয়ে

» ট্রাফিক সার্জেন্ট কিবরিয়াকে বাঁচানো গেল না

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট

বৃহস্পতিবার, ৭ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, সকাল ১১:২৬ ,

হুমকির মুখে চা শিল্প , দাবীতে আপসহীন চা শ্রমিক !!

আনোয়ার হোসেন ; মাধবপুর প্রতিনিধি ::   শ্রমিকদের আন্দোলনের মুখে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার নোয়াপাড়া চা বাগান বন্ধ করে দিয়েছে বাগান কর্তৃপক্ষ। বাগান ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী অপসারণের দাবিতে শ্রমিকদের ধর্মঘটের প্রেক্ষিতে বাগান বন্ধর ঘোষণা দিলো মালিকপক্ষ। ৩দিন ধরে এই দাবিতে ধর্মঘট করছে শ্রমিকরা।
প্রশাসনের উদ্যোগে চা বাগানে শ্রমিক ধর্মঘট প্রত্যাহারের জন্য সোমবার (২৭ মে) দিনভর বৈঠক হলেও শ্রমিকরা ধর্মঘট শ্রমিকরা প্রত্যাহার করেনি।
এতে করে শ্রমিকদের এ দাবিকে বেআইনি ঘোষণা করে বাগান বন্ধের ঘোষণা করেছে বাগান কর্তৃপক্ষ। সোমবার বিকেলে বাগানের ডিজিএম রিয়াজ উদ্দিন চিঠি ইস্যু করে বাগান বন্ধের ঘোষণা করেন।
এ ব্যাপারে রিয়াজ উদ্দিন বলেন শ্রম আইনের ১৩(১) ধারা মতে শ্রমিকদের এ ধরনের হঠ্যাৎ ধর্মঘট সম্পূর্ণ বেআইনি তাই বাধ্য হয়ে চা বাগান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।বাগানের সমস্যা নিরসনের জন্য সোমবার সকালে শ্রীমঙ্গল শ্রম অধিদপ্তরের উপপরিচালক নাহিদুল ইসলাম, হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম রাজু আহমেদ, লস্করপুর ভ্যালি চা শ্রমিক সভাপতি রবীন্দ্র গৌড় সহ শ্রমিক নেতাদের উদ্যোগে সোমবার সকালে নোয়াপাড়া চা বাগানে শ্রমিকদের নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
বৈঠকে শ্রমিকরা দাবি করেন ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী নিঃশর্তে বাগান ছেড়ে চলে যাওয়ার দাবি করেন। শ্রমিকদের এ দাবী বাগান কর্তৃপক্ষ মেনে না নেওয়ায় শ্রমিকরা বৈঠক ত্যাগ করে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।
লস্করপুর ভ্যালি সভাপতি রবীন্দ্র গৌড় বলেন, এখন শ্রমিকদের একটাই দাবি ব্যবস্থাপক না যাওয়া পর্যন্ত লাগাতার কর্ম বিরতি চলবে। শ্রীমঙ্গল শ্রম উপ পরিচালক নাহিদুল ইসলাম বলেন এটি কোন বড় সমস্যা ছিলনা তবে শ্রমিক ও মালিক পক্ষ যার যার অবস্থানে অনড় থাকায় সমস্যাটি সমাধান হয়নি।
তিনি বলেন, সরকারের  পক্ষে ন্যায্যতার ভিত্তিতে আমরা একটি সমাধান চেয়েছিলাম এখন উভয় পক্ষ অনড় থাকায় বাগান ও শ্রমিক আর্থিক ক্ষতির মধ্যে পড়বে। বাগান বন্ধ ঘোষণা হওয়ায় আগামী সপ্তাহে শ্রমিকরা রেশন তলব পাবেন না।
উল্লেখ্য গত শনিবার সকালে চা বাগান শ্রমিকদের সাথে বাগান ব্যবস্থাপক ফখরুল ইসলাম ফরিদী শ্রমিকদের ৩৫ দফা দাবি নিয়ে  দর কষাকষির এক পর্যায়ে শ্রমিকরা ক্ষুব্ধ হয়ে কাজে যোগ না দিয়ে ব্যবস্থাপকের অপসারণ চেয়ে কর্মবিরতির ডাক দেয়ে। ৩ দিনের কর্ম বিরতিতে চা বাগানের ভরা মৌসুমে প্রায় ১৫ লাখ টাকার বেশি ক্ষতি হয়েছে বলে বাগানের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে।

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট